UA-199656512-1
top of page

"(#পর্ব_নয়_পোষ্ট_৩২)"


"(#পর্ব_নয়_পোষ্ট_৩২)"


শ্রীনিত্যানন্দপ্রভু প্রতি ঘরে ঘরে, গঙ্গার তীরে তীরে যত জনবসতি অাছে বলে বেড়িয়েছেন:—

"ভজ গৌরাঙ্গ কহ গৌরাঙ্গ

লহ গৌরাঙ্গের নামরে ৷

যেই জন গৌরাঙ্গ ভজে

সেই হয় অামার প্রাণরে॥"

এইভাবেই তিনি গৌরাঙ্গের নাম নিয়ে সকলের দুয়ারে দুয়ারে অাবেদন করেছেন যে, সব ছেড়ে গৌরাঙ্গকে ধরতে হবে,তাতেই অামাদের সব লাভ হবে, সর্বশ্রেষ্ঠ বস্তু পাওয়া যাবে ৷ নিত্যানন্দপ্রভু অধম পতিত জনের দুয়ারে দুয়ারে গিয়ে বলছেন, "অামারে কিনিয়া লহ ভজ গৌরহরি", এই বলে নিত্যানন্দপ্রভু কখনও গড়াগড়ি দিচ্ছেন অার অাবেদন নিবেদন করছেন "মহাপ্রভুর চরণ অাশ্রয় করার জন্য" ৷ এই হচ্ছেন নিত্যানন্দপ্রভু,যিনি জগাই মাধাইর মত পাপীকে মহাপ্রভুর কাছে পৌঁছে দিলেন, দুয়ারে দুয়ারে গিয়ে সবাইকে অনুনয় বিনয় করলেন, "মহাপ্রভুকে অাশ্রয় করে জীবন সার্থক করার জন্য" ৷

মহাপ্রভুর ইচ্ছায় শ্রীরূপ-সনাতন ষড়্ গোস্বামী বৃন্দাবনে প্রচার করলেন অার নিত্যানন্দ প্রভু গৌড় দেশে তাঁর পরিকরবৃন্দকে নিয়ে বিপুলভাবে প্রচার করলেন ৷ নিত্যানন্দপ্রভুর গোড়া থেকেই জগতে পতিত উদ্ধার করার জন্য তাদের মহাপ্রভুর শ্রীচরণে অাকৃষ্ট করার পথ বেছে নিয়েছিলেন ৷

শ্রীচৈতন্যলীলার ব্যাস রূপে অামরা দু'জনকে দেখতে পাই এবং দুজনই নিত্যানন্দপ্রভুর কৃপা লাভ করেছেন ৷ প্রথম পাই শ্রীবৃন্দাবন দাস ঠাকুরকে,তিনি চৈতন্য ভাগবত রচনা করেছিলেন ৷ অার শ্রীচৈতন্যলীলার দ্বিতীয় ব্যাস হচ্ছেন শ্রীকৃষ্ণদাস কবিরাজ গোস্বামী যিনি চৈতন্যচরিতামৃত রচনা করেছেন ৷(নিত্যানন্দপ্রভুর প্রিয় ভক্ত মীনকেতন রামদাসকে সন্তুষ্ট করে নিত্যানন্দের কৃপা লাভ করেছেন কবিরাজ গোস্বামী ৷) নিত্যানন্দপ্রভু না অাসলে মহাপ্রভুর দিব্যলীলা কিছুই জানা যেত না ৷,কেন না তাঁর কৃপা নিয়েই মধুর চৈতন্যলীলা জগৎকে দান করেছেন বৃন্দাবন দাস ঠাকুর এবং কবিরাজ গোস্বামী ৷

নিত্যানন্দ প্রভুর পরবর্তীকালে নিত্যানন্দশক্তি শ্রীজাহ্নবাদেবী সম্প্রদায়ের হাল ধরেছেন, নিত্যানন্দের প্রতিনিধিরূপে দীক্ষা দিয়ে শিষ্যও করেছেন ৷ নিত্যানন্দের অপর শক্তি বসুধাদেবীর গর্ভজাত নিত্যানন্দ নন্দন হচ্ছেন শ্রীবীরচন্দ্রপ্রভু, তিনিও শ্রীজাহ্নবী দেবীর থেকে দীক্ষা নিয়ে উদার ভাবে প্রচার করেছেন ৷ এইভাবে শ্রীনিত্যানন্দপ্রভুর দ্বারা জগৎজীব মহাপ্রভুর কৃপালাভ করতে সক্ষম হয়েছে এবং এখনও হচ্ছে ৷

* * *

* *

*

0 views0 comments
Be Inspired
bottom of page