UA-199656512-1
top of page

রাধাভাবে ভোরা গোরা ৷(#পর্ব_সাত_চলবে)"' ^^^^^^^^^


রাধাভাবে ভোরা গোরা ৷(#পর্ব_সাত_চলবে)"'

^^^^^^^^^


"#দামোদর_অাগে_স্বাতন্ত্র্য_না__হয়_কাহার ৷ তাঁর ভয়ে সভে করে সঙ্কোচ ব্যবহার॥ #প্রভুর গণে যার দেখে অল্প মর্যাদা-লঙ্ঘন ৷ বাক্যদণ্ড করি করে মর্যাদা স্থাপন॥"

(৩/৩/৪৩—৪৪)


*#স্বরূপ_দামোদর*—

*#শ্রীল_স্বরূপ_দামোদরের মত প্রেমময় কৃষ্ণ-রস-তত্ত্ববেত্তা* এবং *#মহাপ্রভুর_হৃদয়তত্ত্ববেত্তা* দ্বিতীয় ছিল না ৷ স্বরূপ দামোদর সম্পর্কে স্বয়ং মহাপ্রভু এই উক্তিটি করেছেন—

*#দামোদর_স্বরূপ_প্রেমরস_মূর্তিমান্।যাঁর সঙ্গে হৈল ব্রজের মধুর-রস জ্ঞান॥* (চৈ;চ;-৩-৭-৩০)


#এই সমস্ত কারণের জন্যই স্বরূপ দামোদরকে বলা হয়- *#মহাপ্রভুর_দ্বিতীয়_স্বরূপ৷"*

স্বরূপ দামোদর শাস্ত্রে বৃহস্পতিতুল্য মহাপণ্ডিত তো ছিলেনই এবং সঙ্গীতেও গন্ধর্ব সমান এমনই সুমিষ্ট কণ্ঠের অধিকারী ছিলেন যে, সহস্র কোকিলের সুমধুর ধ্বনি এবং সেই সাথে সহস্র কিন্নর কণ্ঠীর সুমধুর ধ্বনি একত্রিভূত হলেও স্বরূপ দামোদরের সমান মিষ্ট হত না ৷

*#স্বরূপ_দামোদরের সুললিত কণ্ঠ নিঃসৃত মধুরাতিমধুর সঙ্গীত অমৃতের নদী হয়ে মহাপ্রভুর হৃদয়কে প্লাবিত করে দিত, তাহাতে মহাপ্রভু প্রেমোন্মাদনায় মেতে থাকতেন ৷

#স্বরূপ_দামোদর মহাপ্রভুর মনের ভাব অনুধাবন করতে পারতেন ৷ তাই মহাপ্রভুর কৃষ্ণ বিরহ দশায় তাঁর মনের ভাব অনুযায়ী ভাগবতের শ্লোক এবং বিদ্যাপতি , চণ্ডীদাস, গীতগোবিন্দের পদ সুমধুর স্বরে কীর্তন করে স্বরূপ দামোদর সর্বদা মহাপ্রভুর আনন্দ দান এবং ভাবের পুষ্টি সাধন করতে পারতেন ৷

#ভক্তিসিদ্ধান্ত_বিরুদ্ধ কোন কথা শ্রবণ করলে মহাপ্রভু মনে মনে কষ্ট পেতেন ৷ মহাপ্রভুর মনের ভাব স্বরূপ দামোদর বুঝতে পারতেন বলে তিনি নিয়ম করে দিয়েছিলেন-কেউ কিছু রচনা করে মহাপ্রভুকে শোনাবার জন্য আনলে প্রথমে স্বরূপ দামোদর সেটি পরীক্ষা করে দেখবেন ৷

#শ্রীজগন্নাথ_মন্দির,

রাজপথ, সমুদ্র সৈকত যে কোন স্থানে যখনই মহাপ্রভুর বিরহ ও মহাভাবের উদয় হত তখনই মহাপ্রভুকে নিয়ে যত বিপদের সম্ভাবনা দেখা দিত, সেই অবস্থায় স্বরূপ দামোদরই ঠিক সময় মত মহাপ্রভুকে রক্ষা করতেন ৷ #অর্থাৎ দয়াময় মহাপ্রভুর মনের ভাব স্বরূপ দামোদর পরিপূর্ণভাবে বুঝতে পারতেন বলেই মহাপ্রভুকে সদাসর্বদা সর্বতোভাবে আগলে রাখতে পারতেন ৷

#মহাপ্রভুর_গম্ভীরা লীলাতে বিশেষভাবে রামানন্দ রায় নিত্যদিন গভীর রাতে মহাপ্রভুকে শয়নে দিয়ে নিজের বাসভবনে চলে যেতেন, তখন শুধুমাত্র স্বরূপ দামোদরই মহাপ্রভুর পাশে থেকে গোবিন্দের সাহচর্যে বিনিদ্র রাত্রি যাপন করে মহাপ্রভুকে রক্ষা করতেন ৷

#রামানন্দ_রায়_এবং_স্বরূপদামোদর সমগ্র গম্ভীরা লীলার সর্বত্রই মহাপ্রভুর মুখ্য সঙ্গীরূপে বিরাজমান ছিলেন ৷ এই বিষয়ে শ্রীশ্রীচৈতন্যচরিতামৃতে অসংখ্য পয়ার আছে, যার মধ্যে মাত্র কয়েকটি উল্লেখ করছি যাতে বিষয়টির সত্যতা উপলব্ধি করা যায়—

*#রামানন্দের কৃষ্ণকথা, স্বরূপের গান।বিরহ বেদনায় প্রভুর রাখয়ে পরাণ॥*(৩/৬/৫)


*#দিনে_নৃত্য, কীর্তন, ঈশ্বর-দরশন ৷ রাত্রে রায় স্বরূপ সনে রস-আস্বাদন ॥*(৩/১১/১১)


*#স্বরূপ গোঁসাঞি আর রামানন্দ রায় ৷ রাত্রিদিনে করে দোঁহে প্রভুর সহায় ॥*(৩/১১/১৪)


*#অতঃপর_মহাপ্রভু বিষন্ন অন্তর।কৃষ্ণের বিয়োগ-দশা স্ফুরে নিরন্তর ৷৷* (৩/১২/৩)


*#হা ! হা কৃষ্ণ ! প্রাণনাথ ব্রজেন্দ্রনন্দন । কাঁহা যাও, কাঁহা পাঙ মুরলীবদন।।* (৩/১২/৪)


*#রাত্রি_দিনে এই দশা স্বাস্থ্য নাহি মনে ৷ কষ্টে রাত্রি গোঙায় স্বরূপ-রামানন্দ সনে ॥"* (৩/১২/৫)


*#এই_মত গৌরপ্রভু প্রতি দিনে দিনে ৷ বিলাপ করেন স্বরূপ-রামানন্দ সনে ॥* (৩/১৫/২৩)


*#সেই_দুই জন প্রভুর করে আস্বাসন।স্বরূপ গায়,রায় করে

শ্লোক পঠন॥* (৩/১৫/২৪)


*#এই_মত মহাপ্রভু বৈসে নীলাচলে ৷ রজনী দিবস কৃষ্ণবিরহে বিহ্বলে ॥* (৩/২০/২)


*#স্বরূপ_রামানন্দ এই দুজনার সনে ৷ রাত্রিদিনে রসগীত শ্লোক-আস্বাদনে ॥* (৩/২০/৩)


*#হর্ষে_প্রভু_কহে, শুন স্বরূপ রাম রায় ৷ নাম সংকীর্তন কলৌ পরম উপায় ॥* (৩/২০/৭)


"#চণ্ডীদাস_বিদ্যাপতি ,

রায়ের নাটক গীতি ,

কর্ণামৃত শ্রীগীতগোবিন্দ ৷

স্বরূপ রামানন্দসনে ,

মহাপ্রভু রাত্রিদিনে , *#গায়_শুনে_পরম_আনন্দ॥* (২/২/৬৬)

#আরও_এমন_অনেক_পয়ার শ্রীশ্রীচৈতন্যচরিতামৃতে আছে !

#এখন_শেষের_পয়ারটি তে

একটু আলোকপাত করা যাক ৷ এই পয়ারটি হইতে স্পষ্টতই বুঝতে পারা যায়, গম্ভীরায় বিবিধভাবে আবিষ্ট হয়ে মহাপ্রভু

চণ্ডীদাস ও বিদ্যাপতির পদাবলী, রায় রামানন্দের জগন্নাথবল্লভ নাটক, শ্রীবিল্বমঙ্গল ঠাকুরের শ্রীকৃষ্ণকর্ণামৃত এবং শ্রীজয়দেব গোস্বামীর শ্রীশ্রীগীতগোবিন্দ থেকে স্বীয় ভাবানুকুল পদ কখনও নিজে কীর্তন করতেন, আবার কখনও রামানন্দ রায় বা স্বরূপ দামোদর কীর্তন করে মহাপ্রভুকে শোনাতেন ৷

#মহাপ্রভুর_আস্বাদ্য কাব্য বা গ্রন্থের মধ্যে শ্রীকৃষ্ণকর্ণামৃত, রামানন্দ রায়ের শ্রীজগন্নাথবল্লভ নাটক এবং শ্রীজয়দেব গোস্বামীর শ্রীগীতগোবিন্দ তিনখানিই সংস্কৃতে রচিত এবং সমস্তই কৃষ্ণলীলা-বিষয়ক ৷

#শ্রীবিল্বমঙ্গল_ঠাকুর রচিত কর্ণামৃত এবং শ্রীজয়দেব গোস্বামী রচিত শ্রীগীতগোবিন্দ আধ্যাত্ম জগতে অত্যন্ত সুবিদিত ৷

*#জগতে_শত_শত_লেখকের_অগণিত_গ্রন্থ_থাকতেও_দীর্ঘ_বারো_বছর_গম্ভীরালীলায়_মহাপ্রভু*__ উপরি উল্লেখিত ঐ পাঁচজন লেখকের পাঁচখানি গ্রন্থের— *#রসমাধুর্যই_শুধু_আস্বাদন_করিতেন_কেন_?*

#ঐ_পাঁচজন_লেখক এবং তাঁদের পাঁচখানি গ্রন্থ থেকে একটু আলোকপাত করা যাক ৷

* * *

0 views0 comments
Be Inspired
bottom of page